শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১০:৪৩ পূর্বাহ্ন

ওমান থেকেও দেশে আসছে করোনা রোগী!

ডেস্ক রিপোর্টঃ
  • প্রকাশিত: শনিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০
ওমানে করোনা আক্রান্তের শীর্ষে রয়েছে মাস্কাট ও বাতিনা অঞ্চল

মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ থেকে করোনা পজিটিভ প্রবাসীরা দেশে ফিরছেন। গত এক মাসে এমন একাধিক করোনা পজিটিভ প্রবাসী ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে শনাক্ত হন। কোভিড পজিটিভ সনদ থাকার পরও এসব যাত্রীকে ঢাকায় নিয়ে আসে একাধিক বিমান সংস্থা। সাত যাত্রীর মধ্যে চারজন সৌদি এয়ারলাইনসে, দুজন কাতার এয়ারওয়েজে ও একজন বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ফ্লাইটে ঢাকায় আসেন। কাতার ও সৌদি আরবের পর এবার ওমান থেকেও আকাশ পথে দেশে আসছে করোনা রোগী এমন অভিযোগ উঠে আসছে। এর সাথে জড়িত ওমানের কয়েকজন রাঘবোয়াল রয়েছে বলে সুত্রে জানাগেছে। এই চক্রটি করোনাকালিন সময়ে ওমান থেকে সরকারী ভাবে বিশেষ ফ্লাইটে প্রবাসীদের দেশে ফেরত পাঠানোর নামে টিকিট জালিয়াতি করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন এমন প্রমান ও মিলছে। ইতিমধ্যেই প্রবাস টাইমের হাতে ওমান থেকে একাধিক ব্যাক্তির নামে অভিযোগ ও প্রমান এসেছে।


ইতিপূর্বে মধ্যপ্রাচ্য থেকে দেশে আসা করোনা  পজিটিভ  সাত যাত্রীর মধ্যে একজন নারী ও ছয়জন পুরুষ। বর্তমানে মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কয়েকটি দেশের সঙ্গে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ থাকলেও সেখান থেকে বাংলাদেশ বিমান ও অন্যান্য এয়ারলাইনসের বিশেষ ফ্লাইটে করে প্রবাসী বাংলাদেশিরা দেশে ফিরছেন। বিমানবন্দর সূত্র জানায়, বাংলাদেশিদের দেশে ফেরার ক্ষেত্রে কোভিড সনদ বাধ্যতামূলক না থাকায় কেউ কেউ সুযোগ নিচ্ছেন। একই কারণে ফ্লাইটে ওঠার আগে বিমান সংস্থাগুলোও বাংলাদেশি যাত্রীদের কোভিড সনদ আছে কি না, তা যাচাই করছে না।

বিমানবন্দর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের ধারণা, এভাবে করোনাভাইরাসের আক্রান্ত আরও অনেক রোগী সহজেই বের হয়ে গেছেন। ১৪ সেপ্টেম্বর সবশেষ করোনা পজিটিভ সনদসহ যাত্রী শনাক্তের পর বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি অবহিত করে বিমানবন্দর স্বাস্থ্যকেন্দ্র।

আরো পড়ুনঃ অক্টোবর থেকে ওমানে নিয়মিত ফ্লাইট চালু করবে বিমান

বিমানবন্দর স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহরিয়ার সাজ্জাদ বলেন, বিষয়টি বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে জানানোর পর ওই দিন সংশ্লিষ্ট বিমান সংস্থাগুলোকে নিয়ে বৈঠক হয়। সাতজন কোভিড পজিটিভ রোগীকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। যে সাতজন কোভিড পজিটিভ রোগী পাওয়া গেছে, তাঁরা স্বাভাবিক যাত্রী হিসেবেই ঢাকায় আসেন।

এ ব্যাপারে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন তৌহিদ-উল আহসান বলেন, প্রবাসী বাংলাদেশিদের ক্ষেত্রে দেশে ফেরার সময় যে কোভিড সনদ আনতে হবে, তেমন বাধ্যবাধকতা নেই।

তাই অনেকে বিদেশ থেকে আসার সময় কোভিড পজিটিভ থাকার বিষয়টি লুকিয়ে রাখেন। বিমান সংস্থাগুলোও যাচাই করে না। তবে তাঁরা এ ব্যাপারে বিমান সংস্থাগুলোকে সতর্ক করে চিঠি পাঠিয়েছেন। তা ছাড়া সেসব যাত্রী কোভিড পজিটিভ সনদসহ শনাক্ত হয়েছেন, ফ্লাইটে তাঁদের আশপাশের যাত্রীদের সতর্ক করা হয়েছে।

আরো পড়ুনঃ কুরআন তেলাওয়াত শুনে জীবিত হলেন তিনি!

এদিকে ওমানে এই কাজে জড়িত এমন কয়েকজনের নামের তালিকা প্রবাস টাইমের কাছে এসেছে। ভুক্তভোগী প্রবাসীরা ওমানের মাস্কাটের গোবরাতে থাকেন এবং বাংলাদেশ সোস্যাল ক্লাব ওমানের সাথে তার ভালো সম্পর্ক এমন এক লোকের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযুক্ত ব্যক্তির নামের প্রথমে এম রয়েছে। ওমান থেকে বিশেষ ফ্লাইটের মাধ্যমে দেশে পাঠানোর ক্ষেত্রে টিকিট জালিয়াতির ও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

আরো দেখুনঃ ওমান থেকে আকাশ পথে দেশে আসছে করোনা রোগী 

প্রবাস টাইম সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

রিলেটেড নিউজ
© 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design by : NooR IT
www.ashrafalisohan.com
error: Content is protected !!