শুক্রবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:১৬ পূর্বাহ্ন

ইসরায়েলের পক্ষে বাহরাইন, ফিলিস্তিনিদের পক্ষে ওমান 

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত: রবিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
ইসরায়েলের পক্ষে বাহরাইন, ফিলিস্তিনিদের পক্ষে ওমান 
ফাইল ছবিঃ

সংযুক্ত আরব আমিরাতের পর এবার ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে রাজি হয়েছে উপসাগরীয় আরব দেশ বাহরাইন। আগামী ৩০ দিনের মধ্যে একটি চুক্তি সই করবে বলে সম্মত হয়েছে দু’দেশ। ইসরায়েলের সঙ্গে স্বাভাবিক কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে বাহরাইনের বিতর্কিত সিদ্ধান্তকে মিশর ও সংযুক্ত আরব আমিরাত স্বাগত জানিয়েছে। তবে অসহায় ফিলিস্তিনিদের পাশে দাড়িয়েছে আমিরাতের পার্শ্ববর্তী অপর আরবদেশ ওমান। 

শুক্রবার মিশরের প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আস-সিসি রাতে এক টুইটে বাহরাইনকে অভিনন্দন জানিয়ে দাবি করেন, ইসরায়েল-বাহরাইন সমঝোতা মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

 

এদিকে, ইসরায়েল ও বাহরাইন স্বাভাবিক সম্পর্ক স্থাপন করার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তাকে অতি গুরুত্বপূর্ণ বলে অভিহিত করেছেন সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হেন্দ আল-ওতাইবা। তিনি এক টুইটে দাবি করেন, এই সমঝোতার ফলে মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা প্রশমন ও স্বস্তির পরিবেশ ফিরে আসবে। টুইট বার্তায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এ সম্পর্ককে ‘একটি ঐতিহাসিক অগ্রগতি’ বলে আখ্যায়িত করেছেন। এর মধ্য দিয়ে মধ্যপ্রাচ্যে পুনরায় শান্তি প্রতিষ্ঠিত হবে বলে ধারনা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের। 

 

গত মাসে প্রথম আরব দেশ হিসেবে ইসরায়েলের সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনে সম্মতিতে পৌঁছায় আমিরাত। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর হোয়াইট হাউসে দেশ দু’টির মধ্যে এ সংক্রান্ত চুক্তি সই হবে। সেই চুক্তি সই অনুষ্ঠানে বাহরাইনও যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে। এর মধ্যে বাহরাইনের পক্ষ থেকে এ ঘোষণা এসেছে।

ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর হোয়াইট হাউসে অনুষ্ঠেয় ইসরায়েল ও আমিরাত চুক্তি সই অনুষ্ঠানে যোগ দেবে বাহরাইন। এসময় তিনি ইসরায়েল-বাহরাইন চুক্তি সম্পর্কে বলেন, এতো দ্রুত এ ঘটনা ঘটবে, অকল্পনীয় ছিল। এদিকে, এ চুক্তিগুলোকে ট্রাম্প প্রশাসনের চার বছরের দুর্দান্ত কাজের সমাপ্তি হিসেবে প্রশংসা করেছেন হোয়াইট হাউসের সিনিয়র উপদেষ্টা ও ট্রাম্পের জামাতা জ্যারেড কুশনার। তিনি বলেন, আমরা মধ্যপ্রাচ্যে একটি নতুন সূচনা দেখতে পাচ্ছি।

তবে ফিলিস্তিনদের অধিকার রক্ষায় আরব দেশগুলিকে এগিয়ে আসতে আহ্বান জানিয়েছেন মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম শান্তিপ্রিয় দেশ ওমান। বৃহস্পতিবার (১০-সেপ্টেম্বর) আরব লিগের ১৫৪তম অধিবেশনের ভার্চুয়াল বৈঠকে ওমানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সৈয়দ বদর আল বুসাইদী বলেন, ফিলিস্তিনের “শান্তির ভূমির নীতি” ভিত্তিক একটি সমাধানের জন্য আরব দেশগুলিকে এগিয়ে আসতে হবে। আল বুসাইদী মধ্য প্রাচ্যের বর্তমান পরিস্থিতি এবং আরব বিশ্বের সমস্যা ও চ্যালেঞ্জেরে বিষয়ে আরো বলেন, ফিলিস্তিনিদের কিভাবে শান্তিপূর্ণ সমাধান পাওয়া যায় সেই বিষয়ে আলোচনা করা উচিত।  

আরো পড়ুনঃ যেসব শর্তে ওমান ফিরতে পারবেন আটকেপড়া প্রবাসীরা 

ফিলিস্তিন জনগণের বৈধ অধিকার পাওয়ার জন্য এবং এই অঞ্চলে শান্তি প্রচেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার পক্ষে সমর্থন দেন মন্ত্রী। এ সময় মন্ত্রী বলেন, দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধানের ভিত্তিতে আরব দেশ ও ফিলিস্তিনদের মধ্যে ন্যায়বিচার ও শান্তি অর্জন সম্ভব নয়। শান্তির জন্য ভূমির নীতি এবং ফিলিস্তিনের ভূমি ইজরাইল দখলের অবসান ঘটানো উচিত। বৈঠকে সুদানে বর্তমানে বন্য পরিস্থিতিতে ওমান তাদের সাধ্যমত সাহায্য সহযোগিতা করেছে বলে জানান পররাষ্ট্র মন্ত্রী। সুত্রঃ ওমান ডেইলি 

এদিকে  ইসরাইলের সঙ্গে বাহরাইনের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার ঘোষণায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ফিলিস্তিন। দু’দেশের সম্পর্কোন্নয়নের বিষয়টিকে ফিলিস্তিনের পিঠে আবারো ছুরিকাঘাত হিসেবে অ্যাখা দিয়েছে প্যালেস্টাইন লিবারেশন অরগানাইজেশন (পিএলও)। ট্রাম্প যখন এই চুক্তিকে মধ্যপ্রাচ্যের শান্তি প্রতিষ্ঠা হিসেবে দেখছেন তখন একে বিশ্বাসঘাতকের ছুরিকাঘাত আখ্যা দিয়েছে ফিলিস্তিন। আরব রাষ্ট্রগুলোর মাধ্যমে ফিলিস্তিনের পিঠে ছুরি মেরেছেন ট্রাম্প বলেও উল্লেখ করা হয়।

আরো দেখুনঃ ওমানের মাতরায় ভয়াবহ সিলিন্ডার বিস্ফোরণ 

প্রবাস টাইম সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

রিলেটেড নিউজ
© 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design by : NooR IT
www.ashrafalisohan.com
error: Content is protected !!