রবিবার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৪৩ পূর্বাহ্ন

হিরো আলমের বিরুদ্ধে থানায় জিডি, ক্ষেপলেন হিরো আলম

ডেস্ক রিপোর্টঃ
  • প্রকাশিত: রবিবার, ২৮ জুন, ২০২০
হিরো আলমের বিরুদ্ধে থানায় জিডি, ক্ষেপলেন হিরো আলম

সোশ্যাল মিডিয়ায় অনৈতিক প্রস্তাব ও প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে উঠে আসা অভিনেতা হিরো আলমের বিরুদ্ধে রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় জিডি করলেন শারমীন আক্তার সাথী নামে এক তরুণী। জিডি নম্বর ১১৭২। শনিবার (২৭ জুন) রাতে জিডি করেন ওই নারী।

এজাহারে ওই নারী অভিযোগ করেছেন, অনন্ত জলিলের সিনেমায় কাজের সুযোগ করে দিবে বলে, তাকে অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে বসেন হিরো আলম। সাধারণ ডায়েরিতে তরুণী অভিযোগ করেছেন, ‘হিরো আলম বগুড়া নামে ফেসবুক থেকে একাধিকবার আমার ফেসবুকে অশ্লীল ভাষায় বিভিন্ন কু-প্রস্তাব দিতে থাকেন। আমাকে বিভিন্নভাবে সমাজের কাছে হেয় করার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যান। বিষয়টি নিয়ে মুখ খুললে আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে হিরো আলম আমাকে ফোন করে প্রাণনাশের হুমকি দিতে থাকেন।’

এ প্রসঙ্গে অভিযোগকারী সাথী জানান, ‘আমি পেশায় নার্স। মাঝেমধ্যে শখে মিডিয়ায় কাজ করি। কাজের কারণে হিরো আলমের সঙ্গে ফেসবুকে যুক্ত হই। এরপর থেকেই তিনি কাজের কথা বলে তিনি জঘন্য রকম যৌন উত্তেজক কথা বলে আমাকে প্রলুব্ধ করার চেষ্টা করেন, উত্ত্যক্ত করেন। তার কথায় সায় না দিয়ে বিষয়টি সিনিয়রদের জানাই। এরপরেই বিষয়টি নিয়ে হিরো আলম আমাকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছেন। তাই নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে আমি থানায় জিডি করি।

এ প্রসঙ্গে হিরো আলম ২৮-০৬-২০ রাত ১২-৩০ মিনিটে তার নিজস্ব ফেসবুক পেইজ থেকে লাইভে এসে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। হিরো আলম বলেন, মূলত আমাকে হেয় করার জন্য আমার শত্রুরা উঠে পড়ে লেগেছে, এছাড়া আর কিছু না। আর আমি কখনো ওই নারীর সাথে কোনো ধরনের চ্যাটিং করিনি। আমার নামে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করা হচ্ছে। আমি স্পষ্ট ভাষায় বলতে চাই আমার নিজস্ব ফেসবুক আইডির নাম ‘হিরো আলম বগুড়া’। আর এখন বর্তমানে যে ফেসবুক লাইভ হচ্ছে এটাই হচ্ছে আমার রিয়েল ফেসবুক পেইজ।

আরও পড়ুনঃ জীবন বদলাতে হিরো আলমের ১০টা কথায়-ই যথেষ্ট

এ ছাড়া বাকি অনেক হিরো আলম নামে ফেসবুক আইডি আছে। হিরো আলম নামে একাধিক ফেসবুক আইডি থাকার কারণে আমি কিছুদিন পূর্বে সাইবার ক্রাইমে বিষয়টি অবগত করেছি। এবং সাইবার ক্রাইম থেকে আমাকে আশ্বাস দিয়েছে তারা উপযুক্ত প্রমাণ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নিবে। এখন সাথী নামের যে মেয়েটা আমার নামে মিথ্যা অপবাদ দিচ্ছে আমি মূলত তাকে চিনি না কখনো তার সাথে কথা হয়নি।

আকাশ নিবির নামে একজন সাংবাদিক আছেন যে আমাকে বিভিন্ন ভাবে ফোন করে উত্যক্ত করে। আমি ফোন করে তৎক্ষণাৎ তাকে দালাল বলি। সাংবাদিক আকাশ নিবির আমাকে প্রস্তাব দিয়েছিল চিত্রনায়ক শাকিব খানের বিরুদ্ধে কিছু বলে ভিডিও ক্লিপ তাকে দিতে, আমি সেটা নাকচ করে দেই। তারপর সে বিভিন্ন নিউজ পোর্টালে আমার বিরুদ্ধে লেখালেখি করে এবং সাথী আক্তার নামে একজনকে আমার বিরুদ্ধে কথা বলার জন্য দার করিয়েছে।

 

আমি নাকি তাকে কুপ্রস্তাব দিয়েছি এটা সম্পূর্ণ বানোয়াট। আমি একটা নিউজ দেখলাম আমার সাথে জায়েদ খানের যে বিরোধিতা ও ডিবি অফিসের নাজমুল ভাইয়ের সাথে আমার আলোচনা করা এবং এই মেয়ের সাথে আমার ম্যাসেঞ্জারে চ্যাটিং করা ও আকাশ নিবিড়ের সাথে আমার ঝামেলা ও আমার ইউটিউব চ্যানেলটি বঙ্গবিডি পরিচালনা করে একজন লোকের মাধ্যমে এসকল তথ্য নিউজে দেওয়া।

আরও পড়ুনঃ ওমানের রাউন্ডএবাউডে প্রথম ট্রাফিক লাইট স্থাপন

আমার এত সব তথ্য কিভাবে তারা জানে, যেখানে জায়েদ ভাই ও ডিবি অফিসার নাজমুল ভাই আর আকাশ নিবির ছাড়া কেউ জানে না এ সকল তথ্য। আমার প্রশ্ন সাথী নামের মেয়ের সাথে আমার চ্যাটিং হয়েছে, তাহলে এই মেয়ের গোপন তথ্য তারা কিভাবে জানে? অবশ্য এটা বিরাট একটা ষড়যন্ত্র আমার বিরুদ্ধে। আমি প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি এর সত্যতা যাচাই করে দোষী সাব্যস্ত কারীকে অতিসত্বর বিচারের আওতায় আনা হোক।

 

প্রবাস টাইম সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

রিলেটেড নিউজ
© 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design by : NooR IT
www.ashrafalisohan.com
error: Content is protected !!