রবিবার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৪২ পূর্বাহ্ন

ওমানে প্রায় ৬০ শতাংশ রোগী সুস্থ, খুলে দেওয়া হচ্ছে বর্ডার

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৬ জুন, ২০২০
ওমানে প্রায় ৬০ শতাংশ রোগী সুস্থ

ওমানে মহামারী করোনায় মোট আক্রান্তের প্রায় ৬০ শতাংশ রোগী সুস্থ হয়েছেন। শুক্রবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ওমানে মোট আক্রান্ত ৩৬,০৩৪ জন। অপরদিকে সুস্থের সংখ্যা ১৯,৪৮২ জন। যা দেশটির মোট আক্রান্তের প্রায় ৬০ শতাংশ। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৯৬২ জন সুস্থ হয়েছে। এদিকে মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ওমানে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৫৩ জন, যাদের মধ্যে ৯৬ জন প্রবাসী এবং ৫৭ জন ওমানি নাগরিক।

ওমানে মৃত্যু ৮৪ জনের বয়স ১৫ বছর থেকে ৬৯ এর মধ্যে এবং ৬০ এর উপরের বয়সী মারা গেছেন ৬৯ জন। বয়সের বিবেচনায় ওমানে ৬০ এর কম বয়সী রোগীর বেশী মৃত্যু হয়েছে। ওমানে মোট ১২৯ জন পুরুষ মারা গেছেন এবং ২৪ জন নারী মৃত্যু বরন করেছেন কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে। সবচেয়ে বেশী মৃত্যু হয়েছে মাস্কাটে। মাস্কাটে মত মৃত্যুর সংখ্যা ১১০ জন। এরপরেই রয়েছে দক্ষিণ বাতিনা অঞ্চল, যেখানে মৃত্যুর সংখ্যা ১৪ জন। উত্তর বাতিনা-১১ জন, আল দাখেলিয়াহ-৬ জন, দক্ষিণ শারকিয়াহ-৪ জন, উত্তর শারকিয়াহ-১ জন, ধোফার-২জন, আল দাহিরাহ-১ জন এবং বুরাইমি অঞ্চলে-১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় মোট ৪০১৩ জনের কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হয়, যাদের মধ্যে নতুন ১১৩২ জন আক্রান্ত ব্যক্তি সনাক্ত করেছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।
নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ৬৩৯ জন ওমানি নাগরিক এবং ৪৯৩ জন প্রবাসী। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন ৯জনের মৃত্যু সহ মোট মৃত্যু ১৫৩ জন। গতকালের নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ৪২৬ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং ১০৫ জনকে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট (আইসিইউ) স্থানান্তর করা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ ওমান থেকে দেশে ফেরার নিবন্ধন শুরু করেছে দূতাবাস

এদিকে ওমানে খুলে দেওয়া হচ্ছে বর্ডার। স্থলপথে প্রথমে জিসিসি তালিকাভুক্ত দেশগুলোর সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা চালু করতে যাচ্ছে। বৃহস্পতিবার দেশটির সুপ্রিম কমিটির এক বৈঠকে দেশটির পরিবহণ মন্ত্রী বলেন, ওমানের বর্ডার গুলো খুলে দেওয়ার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে। ওমানে কোনো পর্যটক প্রবেশ করতে চাইলে, তার অবশ্যই করোনামুক্ত সার্টিফিকেট লাগবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, ইতিমধ্যেই গত ২২ জুন থেকে ওমানের নাগরিকদের দুবাইর বর্ডার খুলে দেওয়া হয়েছে। এখন ওমানের নাগরিকরা চাইলেই সংযুক্ত আরব আমিরাতে যেতে পারবেন। এদিকে দেশটির রোগ নিয়ন্ত্রণ মহাপরিচালক ডঃ সাইফ আল আব্রি বলেন, “জিসিসি খুলে দেওয়ার ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ একটি সমন্বিত পরিকল্পনার বিষয়ে একমত হয়েছে, যা এই দেশগুলির মধ্যে নাগরিক এবং বাসিন্দাদের চলাচলে সহজতর করবে।”

 

প্রবাস টাইম সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

রিলেটেড নিউজ
© 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design by : NooR IT
www.ashrafalisohan.com
error: Content is protected !!