শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০২:০২ পূর্বাহ্ন

বিশেষ ফ্লাইটে সৌদি থেকে ফিরলেন ৩৮৮ বাংলাদেশি

বিশেষ প্রতিনিধিঃ
  • প্রকাশিত: সোমবার, ২২ জুন, ২০২০
বিশেষ ফ্লাইটে সৌদি থেকে ফিরলেন ৩৮৮ বাংলাদেশি

অনেক প্রত্যাশার পর অবশেষে করোনাভাইরাসের কারণে আটকে পড়া ৩৮৮ বাংলাদেশী প্রবাসী দেশে ফিরলেন সৌদি আরবের রিয়াদ থেকে। রবিবার (২১ জুন) রাত সাড়ে ৯টার দিকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ফ্লাইটটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে। বিমানের উপ-মহাব্যবস্থাপক তাহেরা খন্দকার এই তথ্য জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ থেকে সৌদিতে আসা ওমরা কিংবা ভিজিটে থাকা অনেকে আটকা পড়েছিলেন। পাশাপাশি সৌদি আরবের করোনা মোকাবেলায় কারফিউ এবং লকডাউনের কারণে অনেক অসুস্থ প্রবাসীর দেশে যাওয়া জরুরী হলেও সম্ভব হচ্ছিল না। এতে করে সৌদি আরবে অনেক প্রবাসী মানবেতর জীবনযাপন করছিলেন ।

সবকিছু মিলে সৌদি আরবের এই সকল অসুস্থ প্রবাসী এবং আটকা পড়া বাংলাদেশিদের দেশে ফেরাতে লিখিত এবং লাইভের মাধ্যমে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপির কাছে অনুরোধ জানান সোশ্যাল একটিভিস্ট আব্দুল হালিম নিহন। অনুরোধের কয়েকদিনের মধ্যেই বিশেষ ফ্লাইটের ঘোষণা আসে রিয়াদ বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে। ঘোষণা আসার পর সৌদি আরবের আটকা পড়া প্রবাসী এবং অসুস্থ প্রবাসীদের জন্য আবেদন গ্রহণ করা হয় দূতাবাসের দেয়া একটি লিংকের মাধ্যমে ।

 

অন্যদিকে রিয়াদ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহর নির্দেশনায় রিয়াদ দূতাবাসের পলিটিক্যাল কাউন্সিলর হুমায়ুন কবিরের পর্যবেক্ষণে দূতাবাসের পাসপোর্ট ও ভিসা উইং এর প্রথম সচিব মোহাম্মদ বেলাল ও পাসপোর্ট ও ভিসা উইং কর্মরত অফিসারদের দক্ষতায় আবেদনকৃতদের মধ্য থেকে ধারাবাহিক ভাবে ৩ টি লিস্টের মাধ্যমে ৫৩৫ জনের নামের তালিকা রিয়াদ দূতাবাসের ওয়েবে প্রকাশ করা হয়। তালিকা প্রকাশের পর যাদের নাম তালিকাতে আসছে তারা টিকেট সংগ্রহ করেছেন বাংলাদেশ বিমান থেকে।

প্রবাসীরা বলছেন, ৩ মাস পর রিয়াদ থেকে দূতাবাসের পরিচালনায় সুন্দর একটি বিশেষ ফ্লাইট পেলেন প্রবাসীরা। তারা বলেন, এই বিশেষ ফ্লাইট যদি দূতাবাস থেকে পরিচালনা করা না হতো তাহলে অসুস্থ এবং অসহায় প্রবাসী যারা আছেন তারা হয়তো দেশে যাওয়ার সে সুযোগ পেতেন না। দূতাবাসের এমন উদ্যোগকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রবাসীরা।

আরও পড়ুনঃ অবশেষে ওমান থেকে চালু হচ্ছে বিমানের বিশেষ ফ্লাইট

অন্যদিকে অসুস্থ প্রবাসীদের বিমান থেকেও অনেক সহযোগিতা করা হয়েছে বলে মন্তব্য প্রবাসীদের। তবে সমস্যা কেবল বর্তমান টিকেটের দাম নিয়ে। এই সকল বিশেষ ফ্লাইটে যেহেতু ৮০% প্রবাসী অসহায় এবং অসুস্থ। সুতরাং তাদের জন্য ২৮০০ সৌদি রিয়াল দিয়ে টিকেট সংগ্রহ করাটা দুষ্কর। আর তাই প্রবাসীরা রিয়াদ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহর মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকার এবং বিমান মন্ত্রণালয়য়ের কাছে অনুরোধ রেখেছেন পরবর্তী ফ্লাইটে যেন টিকেটের মূল্য কমিয়ে আনেন এবং বিমানের বিশেষ ফ্লাইট গুলো যেন বরাবরের মতন দূতাবাসের মাধ্যমেই পরিচালিত হয়।

প্রবাস টাইম সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

রিলেটেড নিউজ
© 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design by : NooR IT
www.ashrafalisohan.com
error: Content is protected !!