শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ০৬:০৭ পূর্বাহ্ন

কুয়েত প্রবাসীদের জন্য ফ্লাইট চালুর দাবী

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ২১ মে, ২০২০
কুয়েত প্রবাসীদের জন্য ফ্লাইট চালুর দাবী

সাদেক রিপন,কুয়েত থেকে

বিশ্বব্যাপী মহামারী করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাব বিস্তার রোধে প্রতিটি দেশই নানা ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। অন্যান্য দেশের মতো কুয়েত সরকারও গত ১২ মার্চ থেকে লকডাইনের ঘোষণা করার পরেরদিনই মার্চের ১৩ তারিখ হতে শুধুমাত্র কার্গো বিমান ব্যতীত বাণিজ্যিক সহ সব ধরণে ফ্লাইট চলাচল স্থগিত ঘোষণা করে দেশির সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ।

প্রায় তিন মাস কাছাকাছি কুয়েতে প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মহীন বেকার অলস সময় কাটাচ্ছেন। লকডাউনের ফলে বন্ধ হয়ে যায় ব্যবসায় প্রতিষ্ঠান এবং বিভিন্ন কোম্পানি ও কারখানা। এমতাবস্থায় মালিকরা বেশিরভাগ শ্রমিকদের বাধ্যতামূলক ছুটির দিয়ে দিয়েছে। কর্ম না থাকার ফলে আবার রমজান মাস প্রবাসী খাওয়া খরচ ও বাসা ভাড়া দিতে হিমশিম খাচ্ছেন প্রবাসীরা।

লকডাউনে ঘরবন্দি হয়ে বসে থাকতে থাকতে বয়স্করা সহ অনেকেই ডায়াবেটিকস সহ নানা ধরনে শারীরিক সমস্যায় ভুগছেন। অর্থের অভাবে চিকিৎসা ও করাতে পারছেননা অনেকেই। আবার অনেক প্রবাসী ছুটেতে দেশে যাওয়ার জন্য টিকেট কিনেও ফ্লাইট বাতিল হওয়ার কারণে দেশে ফিরতে না পেরে কুয়েত প্রবাসীরা বাংলাদেশ সরকারের কাছে দাবী জানিয়েছেন তাদের জন্য বিশেষ ফ্লাইটের ব্যবস্থা করে দেশে ফিরিয়ে নিতে।

কুয়েতে প্রবাসী মোঃ সাইফুল ইসলাম বলেন, লকডাউনের কারণে সব কিছু বন্ধ থাকায় আমরা আর্থিক কষ্টের মধ্যে রয়েছি, খাবারের সমস্যায় আছি। কর্মহীন ও বেতন না পাওয়ায় মানুষিক দুশ্চিন্তায় অনেকই ডায়াবেটিস সহ বিভিন্ন অসুখে ভুগছেন। এমতাবস্থায় তাদের চিকিৎসা ও বেঁচে থাকার জন্য পরিবারের কাছে আসা খুব প্রয়োজন বলে মনে করেন প্রবাসীরা।

বেলায়েত হোসেন নামে অপর এক প্রবাসী জানান, আমি একজন ট্যাক্সি ড্রাইভার, করোনার কারণে দেশটিতে ট্যাক্সি চলাচলের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় আমরাও বেকার পয়ে পড়েছি। এটা ছাড়া আমাদের অন্য কোন আয়ের উপায় নেই। এতো দিন ধার দেনা করে চলেছি, এখন সেটাও আর সম্ভব না। আমি ঈদে দেশে যাওয়ার জন্য দুই মাস আগে টিকেট করেছি, করোনার কারণে ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দেশেও যেতে পারছি না। বাংলাদেশ সরকারের কাছে অনুরোধ আমাদের জন্য যেন বিশেষ ফ্লাইটে ফিরিয়ে নেওয়ার ব্যবস্থা করে।

আরও পড়ুনঃ মাস্কাটে যেসকল ব্যবসায় নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত

এদিকে কুয়েত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর পুনরায় বাণিজ্যিক ফ্লাইটের জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করছে বলে জানাগেছে। দেশটির সরকারের নির্দেশ মোতাবেক স্বাস্থ্যবিধি মেনে যেকোনো সময় শুরু হতে পারে বাণিজ্যিক ফ্লাইট। অন্যদিকে বিমান বন্দরের সিভিল এভিয়েশন তাদের কার্যক্রম ফের পরিচালনা করার জন্য নির্দেশের অপেক্ষায় রয়েছে। তবে কখন থেকে এবং কোন কোন দেশের সাথে বিমান চলাচল শুরু করা হবে, তাহা স্পষ্ট করেনি কতৃপক্ষ।

প্রবাস টাইম সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

রিলেটেড নিউজ
© 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design by : NooR IT
www.ashrafalisohan.com
error: Content is protected !!