রবিবার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ০৩:৩১ পূর্বাহ্ন

ওমানে অস্থায়ী হাসপাতাল উদ্বোধন

  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ১৯ মে, ২০২০
ওমানে অস্থায়ী হাসপাতাল উদ্বোধন

করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সম্প্রতি দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. আহমেদ বিন মোহাম্মদ আল সাইদী মাস্কাটের আল আমরাতে করোনা চিকিৎসার জন্য একটি অস্থায়ী হাসপাতাল উদ্বোধন করেছেন। ওমান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (ওএমএ) এই অস্থায়ী হাসপাতালটি উদ্বোধন করে। হাসপাতালটি করোনার মহামারী সংক্রমণে ওএমএ‘র একটি প্রচেষ্টা বলে উল্লেখ করা হয়।

করোনা মহামারী যেনো দেশটিতে বেড়ে না যায় তাই সামাজিক ও মানবিক দায়বদ্ধতা থেকে ওমান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন এই অস্থায়ী মেডিকেলটি চালু করেছে। অ্যাসোসিয়েশনটি বর্তমান পরিস্থিতি দূর করতে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা সরঞ্জাম সরবরাহ করে যাচ্ছে। একই সাথে দেশটির স্বাস্থ্য সংস্থাগুলির কর্ম পরিকল্পনাতেও সহযোগিতা করছে। এছাড়াও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য ব্যক্তিগত সুরক্ষামূলক সরঞ্জাম সরবরাহ করছে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় একটি ফিল্ড হাসপাতাল তৈরি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ওএমএ।

ওমান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনে ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সাথে সমন্বয় করে মুফফা ইনিশিয়েটিভ (টু-গেদার ফর ওমান) চালু করে। প্রথমে মাত্র ৪০ জন স্বাস্থ্যকর্মী, বেশিরভাগ ওমানি ক্যাডাররা এই অ্যাসোসিয়েশন শুরু করে। দুই সপ্তাহ পরে, স্বেচ্ছাসেবীর সংখ্যা ১০০ এ পৌঁছেছে। বর্তমানে অ্যাসোসিয়েশন ওমানে একটি ফিল্ড হাসপাতাল তৈরি ও বর্তমান পরিস্থিতিতে দেশের জনগণের স্বাস্থ্য উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে।

ওমানের অ্যাডলাইফ হাসপাতাল। করোনাভাইরাসের জন্য এই হাসপাতালটি একটি সরকারি হাসপাতাল হিসাবে স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। এই হাসপাতালটিকে করোনাভাইরাস চিকিৎসায় অস্থায়ী হাসপাতাল হিসেবে ব্যবহার করা হবে। হাসপাতালটিতে ৬৪৮ টি শয্যা রয়েছে যার মধ্যে চারটি নিবিড় পরিচর্যা ইউনিট রয়েছে। আন্তর্জাতিক নির্দেশিকা এবং প্রোটোকল অনুযায়ী হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার জন্য হালকা থেকে মাঝারি উপসর্গের সাথে নিশ্চিত হওয়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের ভর্তি করা হবে।

ওমান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (ওএমএ) সভাপতি ডা. ওয়ালিদ খালিদ আল জাদজালি বলেছেন, “হাসপাতালের সমস্ত বিভাগ এবং করিডোর প্রস্তুত করতে এমওএইচ কয়েকটি স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায় একটি প্রযুক্তিগত দল গঠন করা হয়েছে। করোনার চিকিৎসার জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সমস্ত আইন ও বিধি মেনে কাজ করা হচ্ছে। একই সাথে হাসপাতালের সকল স্বাস্থ্য ও প্রশাসনিক কর্মীদের ও রোগীদের সুরক্ষা বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে। ড. আল জাদজালি ওমানের ক্যাডারদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন যারা ওমানে পেশাদার স্বেচ্ছাসেবী হয়ে এই কাজগুলি করছেন এবং এই মহামারী মোকাবেলায় প্রথম সারিতে রয়েছেন।

আরও পড়ুনঃ ওমানে খুলছে আরও বেশকিছু বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান

ওএমএ আরও জানান, হাসপাতালটি ওমানি কর্মীদের পুরো ব্যবস্থাপনায় এই অঞ্চলে মহামারী চিকিৎসার জন্য প্রথম স্বেচ্ছাসেবী হাসপাতাল। বিশেষত চিকিৎসা পেশায় এটি একটি দুর্দান্ত চ্যালেঞ্জ। যার জন্য সমস্ত চিকিৎসা নির্দেশিকাগুলি এবং প্রোটোকলগুলি কঠোরভাবে পালন করা হয়েছে।

 

প্রবাস টাইম সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

রিলেটেড নিউজ
© 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Design by : NooR IT
www.ashrafalisohan.com
error: Content is protected !!