শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:০০ অপরাহ্ন

ধর্ষণ করতে এসে পুরুষাঙ্গ হারালেন পাঁচ সন্তানের বাবা

  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ১ মে, ২০২০
  • ৮৮
ধর্ষণ করতে এসে পুরুষাঙ্গ হারালেন পাঁচ সন্তানের বাবা -Probash Time
প্রতীকী ছবিঃ

গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলায় এক গৃহবধূকে ধর্ষণ করতে গিয়ে পুরুষাঙ্গ কর্তনের শিকার হয়েছেন পাঁচ সন্তানের বাবা রুহুল আমিন (৩০)।  বুধবার (২৯ এপ্রিল) রাতে উপজেলার এরেন্ডাবাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিণ সন্ন্যাসীর চর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার সকালে আহত অবস্থায় রুহুল আমিনকে গাইবান্ধা জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিজের সম্ভ্রম বাঁচাতে এ কাজ করেছেন বলে জানিয়েছেন ওই গৃহবধূ।

গৃহবধূর পরিবার ও স্থানীয়রা জানান, দক্ষিণ সন্ন্যাসীর চর গ্রামের এক জেলের স্ত্রীর সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন প্রতিবেশী আওলাদ হোসেনের ছেলে রুহুল আমিন। বুধবার রাতে ওই জেলে নদীতে মাছ ধরতে গেলে এই সুযোগে রুহুল আমিন বাড়িতে প্রবেশ করে ঘুমন্ত অবস্থায় ওই গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ সময় ওই গৃহবধূ নিজের সম্ভ্রম বাঁচাতে ধারালো ব্লেড দিয়ে রুহুল আমিনের পুরুষাঙ্গ কেটে দেয়।

এ ঘটনার পর রুহুল আমিন দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে সকালে রুহুল আমিনের পরিবারের লোকজন আহত অবস্থায় তাকে গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. মো. হারুন-অর-রশিদ বলেন, ‘লিঙ্গ কর্তনের শিকার রুহুল আমিন নামে এক ব্যক্তি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।’

ফুলছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাওছার আলী জানান, এ ব্যাপারে তিনি কোনো লিখিত অভিযোগ পাননি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ব্যাপারে ওই গৃহবধূ বলেন, ‘লম্পট রুহুল আমিন আমাকে দীর্ঘদিন ধরে উত্ত্যক্ত করে আসছে। নিজের নিরাপত্তা চেয়ে এর আগে গাইবান্ধা কোর্টে একটি জিডি করেছি। এরপরেও তিনি আমাকে উত্যক্ত করে আসছিল। বুধবার রাতে আমার স্বামী নদীতে মাছ ধরতে গেলে এই সুযোগে রুহুল আমিন ঘুমন্ত অবস্থায় আমাকে ধর্ষণ চেষ্টা করলে নিজের সম্ভ্রম বাঁচাতে বাধ্য হয়ে এই কাজ করছি।’

 

প্রবাস টাইম সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।

রিলেটেড নিউজ
© 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি
Technical Support By NooR IT
error: Content is protected !!